শনিবার   ১৭ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ২ ১৪২৬   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

২০১

হাতের স্পর্শ ছাড়াই দুধ উৎপাদন প্রক্রিয়া দেখে এলেন বাঁধন

নিউজ ডেক্স

প্রকাশিত: ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

দেশের উত্তরাঞ্চলের শত শত দুগ্ধ খামারীর কাছ থেকে তরল দুধ সংগ্রহ করে প্রাণ ডেইরী। সেখান থেকে বিশেষ গাড়িতে করে আনা হয় নরসিংদীর ঘোড়াশালের বাগপাড়ায় প্রাণ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের ডেইরীতে ফ্যাক্টরিতে। নানা প্রক্রিয়াকরণের পর সেখানে কোনো প্রকার হাতের স্পর্শ ছাড়াই প্রস্তুত হয় প্যাকেটে মোড়ানো ইউএইচটি (আলট্রা হিট ট্রিটমেন্ট) ও পাস্তুরিত তরল দুধ।

 

সম্প্রতি প্রাণ ডেইরীর দুধ সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ দেখে এসেছেন অভিনেত্রী আজমেরি হক বাঁধন। গত ২৭ জানুয়ারি রোববার প্রাণ ডেইরী আয়োজিত মিল্ক জার্নিতে অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

মিল্ক জার্নিতে প্যাকেটজাত দুধের উৎপাদন প্রক্রিয়া নিয়ে নানা প্রশ্ন করেন অতিথিরা। আয়োজক প্রাণ ডেইরী কর্তৃপক্ষ তাদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন।

 

বাঁধনের এক প্রশ্নের জবাবে প্রাণ ডেইরীর হেড অব বিজনেস রাজীব ইবনে ইসলাম জানান, প্রাণ ডেইরি প্রতিদিন গড়ে দুই লাখ লিটার দুধ উৎপাদন করে। এই দুধ সংগ্রহের জন্য পাবনার চাটমোহর, নাটোরের গুরুদাসপুর, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর ও বাঘাবাড়ি এবং রংপুরে প্রাণের হাব রয়েছে। এসব হাবের অধীনে থাকা খামারিরা মূলত প্রাণকে দুধ দেন। এজন্য তাদের নানা ধরনের প্রশিক্ষণও দিয়ে থাকে প্রাণ। ভোক্তাদের মানসম্মত দুধ পৌঁছে দিতে আমরা খামারিদের সুবিধা দেই। মধ্যস্বত্বভোগী না থাকায় তারা দুধের খামারিরা ন্যায্য দাম পান। সাধারণত দুধে কোনো ভেজাল মেশান না।

অভেনেত্রী বাঁধন দুধ তৈরির পুরো প্রক্রিয়া দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, প্যাকেটজাত দুধ কীভাবে উৎপাদিত হয়, এখানে কোনো ভেজাল আছে কিনা? এ বিষয়ে জানার কৌতূহল ছিল। প্রাণ ডেইরী আমাকে সেই সুযোগ করে দিয়েছে। কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ। কারখানা ভিজিট করে দেখলাম- একেবারে নিভের্জালভাবে হাতের স্পর্শ ছাড়াই দুধ উৎপাদন হচ্ছে। 

এছাড়া প্রাণ ডেইরীর নিবন্ধিত খামারিদের খামারে যাবেন বলেও ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন বাঁধন। তিনি বলেন,  কোথা থেকে আসে এই দুধ আসে তা দেখার জন্য আমি প্রোপোজাল দিয়েছিলাম। তারা আমাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য রাজি হয়েছেন।

‘আর আনন্দের সংবাদ হচ্ছে যে কেউ আমার সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন “PRAN Milk Journey”-তে। যেতে চাইলে রেজিস্ট্রেশন করুন www.pranmilkjourney.com ! আনন্দ, ফূর্তি আর খাওয়া দাওয়ায় পুরো দিন কাটাবো।’

 

গত জানুয়ারির ২৩ তারিখ ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন বাঁধন। তিনি লেখেন, ‘আজ দুপুরে একটা সুপার শপে গিয়েছিলাম প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস কিনতে। হঠাৎ খেয়াল করলাম একটা কর্নারে অনেক মানুষের ভীড়। আগ্রহ নিয়ে কাছে গিয়ে দেখলাম প্রাণ ডেইরী তাদের গরুর দুধ সংগ্রহের প্রক্রিয়া ট্যাবে দেখাচ্ছে। পুরো ব্যাপারটা দেখে ভালোই লাগলো। যদিও অতীতে প্রাণ প্রিমিয়াম ঘি এর সাথে কাজ করেছি তবে প্রাণ ডেইরীর গ্রামের খামারিদের কাছ থেকে দুধ সংগ্রহের পুরো প্রক্রিয়াটা দেখা হয় নাই। পুরো ব্যাপারটা দেখতে পারলে ভাল হতো।’

মূলত ফেসবুকের স্ট্যাটাস দেখে বাঁধনকে সরাসরি ফ্যাক্টরি পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানায় প্রাণ ডেইরী কর্তৃপক্ষ।

মেহেরপুর বার্তা
মেহেরপুর বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর