রোববার   ১৮ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ২ ১৪২৬   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

২১৮

সাংবাদিক লাঞ্চনায় শাকিব খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েক

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৮  

‘শাহেনশাহ’ চলচ্চিত্রের শুটিং সেটে লাঞ্ছিত করার ঘটনায়  এর নায়ক শাকিব খান ও পরিচালক শামীম আহমেদ রনীর বিরুদ্ধে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সমিতিগুলোতে অভিযোগপত্র দিয়েছেন আক্রান্ত দুই সাংবাদিক।

 

গতকাল (১০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বিনোদন সাংবাদিক জিয়াউদ্দিন আলম ও সুদীপ্ত সাঈদ খান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি গিয়ে পত্র জমা দেন। এর আগে দুপুরে আরও একটি চিঠি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি (বাচসাস) পৌঁছে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন এই দুই সাংবাদিক।

বিএফডিসিতে সমিতিগুলোর কার্যালয়ে এসময় উপস্থিত হন সাংবাদিক তুষার আদিত্য, মইনুল হক রোজ, মাজহার বাবু, রাহাত সাইফুল, লিমন আহমেদ, কামরুল ইসলাম রিফাত, রাজন, এ এইচ মুরাদ, ফাতেমা কাউসার, সুশীল রায়, অরণ্য শহীদ, মাসুম আওয়াল, আহমেদ জামান শিমুল, এ মিজানসহ আরও অনেকে।

 

লিখিত বিবরণীতে বলা হয়, গত ৮ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার বিএফডিসিতে ‌‌‘শাহেনশাহ’ নামক চলচ্চিত্রের শুটিং চলছিল। বিকালের দিকে চিত্রনায়ক শাকিব খানের সঙ্গে সিনে ডিরেক্টরিয়াল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (সিডাব) সদস্যদের বিরোধ বাঁধে। তাদের ঝগড়া প্রায় হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায়। পেশাগত দায়িত্বের কারণে সেই পরিস্থিতির ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গেলে ইউনিটের লোকজন সাংবাদিকদের বাধা দেন। এরপর শাকিব খান নিজে এসে মিডিয়া ভুবনের সাংবাদিক জিয়িউদ্দিন আলম ও নিউজজি২৪.কমের সুদীপ্ত সাইদ খানের ওপর চড়াও হন। উপস্থিত আরও সাংবাদিকদেরকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন তিনি। এসময় দুই সাংবাদিককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও অপমানিত করেন শাকিব খান।’

 

এতে আরও বলা হয়, ঘটনার এক পর্যায়ে শাকিব খান তাদের মোবাইল জোরপূর্বক কেড়ে নেন এবং মোবাইল থেকে সেই ঘটনার ধারণকৃত ছবি, ভিডিও ফুটেজসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ফাইলও ডিলিট করে দেন। এ কাজে তাকে সহায়তা করেন পরিচালক শামীম আহমেদ রনী, প্রযোজক লিটন হাশমী ও সহকারী পরিচালক পূজনসহ আরও অনেকে। পেশাগত কাজে বাধা দেওয়াই শুধু নয়, ঘটনা পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে শাকিব খান নানা মিথ্যাচার করে ঘটনাটি অন্যদিকে প্রবাহিত করারও চেষ্টা করছেন।
শাকিব খানের মতো একজন জনপ্রিয় তারকার এমন আচরণে হতবাক বলে সাংবাদিকরা জানান।

 

অভিযোগপত্র পাওয়ার পর বাচসাস সভাপতি আব্দুর রহমান বলেন, ‘রবিবার মিটিং ডেকে করণীয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেব আমরা।’

অন্য দুই চিঠি গ্রহণ করেন বাংলাদেশ পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন ও শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।
এদিকে সন্ধ্যায়, বিষয়টি নিয়ে শাকিব খানের সঙ্গে এফডিসিতে দেখা করলে, তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

মেহেরপুর বার্তা
মেহেরপুর বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর