ব্রেকিং:
নয়াপল্টনে ভাংচুরকারী সন্ত্রাসীদের ধরিয়ে দিতে পুলিশের অনুরোধ ৭ নভেম্বরের পর দেশ দখলের হুমকি দিলো বিএনপির দুদু

মঙ্গলবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৮   অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৫   ০২ রবিউস সানি ১৪৪০

দিনভর সংঘর্ষের পর শেষ বিকেলে যান চলাচল স্বাভাবিক

নিজস্ব প্রতিবেদক 

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০১৮  

দিনভর সংঘর্ষের পর রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোডে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। বিকাল পাঁচটার পর থেকেই বনানী থেকে এয়ারপোর্ট এবং এয়ারপোর্ট থেকে উত্তরা সড়কের উভয় পাশেই যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে এসেছে।

শনিবার (০১ ডিসেম্বর) ভোর থেকে টঙ্গী ইজতেমা ময়দানে তাবলীগ জামাতের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ শুরু হলে এয়ারপোর্ট সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিকেলে পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সড়কটিতে যান চলাচল শুরু হয়।

বিশ্ব ইজতেমা পরিচালনা নিয়ে বিরোধের জেরে তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মুসল্লিদের সংঘর্ষে একজন প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন দুই পক্ষের অন্তত ৫০ থেকে ৬০ জন। এদের মধ্যে কয়েক জনের অবস্থা গুরুতর। বিকালের দিকে দুপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে ইজতেমার মাঠ তাৎক্ষণিকভাবে ফাঁকা করার সিদ্ধান্ত দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর টোয়েন্টিফোর লাইভ নিউজ পেপারকে বলেন, 'পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কোনো পক্ষই মাঠে অবস্থান করতে পারবে না। আমরা মানুষের নিরাপত্তা ও যান চলাচল স্বাভাবিক করার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছি।'

ঢাকা মহানগর পুলিশ ডিএমপি’র ট্রাফিক এর উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার প্রদীপ কুমার রায় বলেন, 'তবলিগের দু পক্ষের সংঘর্ষের সময় স্বাভাবিকভাবে যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। বর্তমানে বনানী থেকে এয়ারপোর্ট এবং এয়ারপোর্ট থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সড়কের উভয়পাশে বেশকিছু ব্লক খুলে দেয়া হয়েছে। বিকেল ৩টার পরেই মূলত তাবলিগের সমর্থকদের রাস্তা থেকে উঠিয়ে দেয়া হয়। বর্তমানে যান চলাচল স্বাভাবিক।'

আজ শনিবার সকাল থেকে ইজতেমা ময়দানে সাদপন্থী এবং জোবায়ের পন্থী তাবলীগ জামাতের সদস্যদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায় সড়কটিতে। ফলে দিনভর কর্মমুখী মানুষদের দুর্বিষহ যানজট মোকাবেলা করতে হয়।
 

মেহেরপুর বার্তা
মেহেরপুর বার্তা