মঙ্গলবার   ২৬ মার্চ ২০১৯   চৈত্র ১২ ১৪২৫   ১৯ রজব ১৪৪০

৩৫

চা, কফি না গ্রিন টি কোনটি খাবেন?

নিউজ ডেক্স

প্রকাশিত: ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

সকাল বেলা ঘুম থেকে এক কাপ চা খেতেই হবে। নাহলে সারাটা দিন কিছুতেই ভালো কাটবে না। চা না খেলে ঘুম ঘুম ভাবই কাটে না। অনেকের আবার চায়ের নেশার পাশাপাশি কফির নেশাও রয়েছে। সকালটা হয়ত চা দিয়ে শুরু হবে তারপর একটু কফি খেলে শরীর বেশ চাঙ্গা লাগে। চা ও কফি দু’টোরই প্রচুর উপকারিতা রয়েছে। কিন্তু চা বা কফির বদলে আমরা কেন গ্রিন টি খাব? সেসব সম্পর্কে জেনে নিন-

 

কফি এমনই একটা জিনিস, যা প্রতিদিন সন্ধ্যেবেলা খেলে এক সময় কফির প্রতি নেশাগ্রস্থ হয়ে পড়বেন। কারণ কফি মানুষকে ধীরে ধরে আসক্ত করে। কফির প্রচুর উপকারিতা থাকতেই পারে। সেই সঙ্গে কফিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন রয়েছে। যা আপনাকে নেশার দিকে আকর্ষণ করে থাকে। এক কাপ কফিতে ৬৫ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। যেটা সম পরিমাণ গ্রিনটি তে ২০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকবে। সেজন্য দুই এক কাপ কফি খেতেই পারেন। কিন্তু নিয়ম করে খাওয়া উচিত নয়। আর কফিতে একবার আসক্ত হয়ে পড়লে সে আসক্ত কাটানোর জন্যও গ্রিন টি খাওয়া শুরু করতে পারেন। শুধু ওজন কমানো নয়, ওজন কমানোর সঙ্গে সঙ্গে গ্রিন টি এর আরো অনেক উপকারিতা রয়েছে।

এছাড়াও অতিরিক্ত ক্যাফেইন খেলে রাতে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে। অতিরিক্ত ক্যাফেইন পেটের সমস্যা দূর করতে পারে। অনেক সময় দেখা যায়, পেট, বুক জ্বালা করে। এর মূল কারণই হলো নিয়ম করে চা বা কফি খাওয়া। সেই চা যদি গ্রিন টি খান তবে এসব সমস্যা হওয়ার ভয় থাকবে না। এমন কি, গ্রিন টি ইউরিক এসিডও কমিয়ে দিতে সাহায্য করে। এছাড়াও গ্রিন টি এর মাধ্যমে নানা রকম বড় বড় রোগের হাত থেকে বাঁচতে পারেন। গ্রিন টি অতিরিক্ত মাত্রায় খাওয়া যাবে না। প্রতিদিন দুই থেকে তিন কাপের বেশি গ্রিন টি খাওয়া উচিত নয়। কিন্তু গ্রিন টিতে ক্যাফেইনের মাত্রা কম থাকলেও তা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। ক্যাফেইনের কারণে মাথা ব্যথা, ঠিকমতো ঘুম না আসা, ক্ষুধা মন্দা, পেটে ব্যাথা, এ ধরণের নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই অতিরিক্ত মাত্রায় ক্যাফেইন খাওয়া উচিত নয়। তাই চা, কফি বা গ্রীন টি পরিমিত পান করা উত্তম।

মেহেরপুর বার্তা
মেহেরপুর বার্তা